সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:০৩ পূর্বাহ্ন

উত্তরখানে ইমাম উদ্দিনে এর বিরুদ্ধে নকশা বহির্ভূত ভবন নির্মানের অভিযোগ

সাইফুল ইসলাম ।।

রাজউকের নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে নকশা বহির্ভূত ও চতুরপাশে ইচ্ছেমত ডেভিয়েশন করে ভবন নির্মান করছেন উত্তরখান থানাধীন মুন্ডা পুলার টেক এলাকার ইমাম উদ্দিন।

রাজউকের নির্দেশনার তোয়াক্কা না করে ও নির্মীতব্য ভবনের রাজউকের নকশার বর্হিভূত ভাবে উত্তর পাশে ৪/৫ ফিট, পূর্বে ২/৩ ফিট, পশ্চিম পাশে ৪/৫ ফিট, দক্ষিন পাশে ২/৩ ফিট করে ডেভিয়েশন করে ভবন নির্মানের কাজ সুকৌশলে দ্রুত গতিতে চালিয়ে যাচ্ছেন ভবন মালিক ইমাম উদ্দিন।

সরেজমিনে অনুসন্ধানে বেড়িয়ে এসেছে নানা তথ্য। আইন অনুযায়ী ঢাকা শহরের প্রায় ১৫২৮ বর্গকিলোমিটারের মধ্যে ইমারত নির্মাণের জন্য নকশা অনুমোদন প্রয়োজন। অনেকের নকশার অনুমোদন আছে কিন্তু রাজউকের নির্দেশনা মানছেনা উত্তরখান থানাধীন এলাকার বিভিন্ন প্লট মালিকরা। এতে ইমারত নির্মাণ আইনের স্পষ্ট ব্যত্যয় ঘটছে বলে জানান সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা।

টাউন ইমপ্রুভমেন্ট অ্যাক্ট-১৯৫৩, বিল্ডিং কনস্ট্রাকশন অ্যাক্ট-১৯৫২ ও ঢাকা মহানগর ইমারত (নির্মাণ, উন্নয়ন, সংরক্ষণ ও অপসারণ) বিধিমালা-২০০৮ অনুসারে রাজউক উপর্যুক্ত এলাকাগুলোতে নকশা অনুমোদনের জন্য ক্ষমতাপ্রাপ্ত।

তবে দেখা যাচ্ছে, অধিকাংশ বাড়ির নকশা থাকলেও এর ব্যত্যয় ঘটিয়ে ভবনের চতুর পাশে ডেভিয়েশন করে নির্মান বাজ চারিয়ে যাচ্ছে ভবন মালিকরা।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্থানীয় কয়েকজন এলাকাবাসী জানান, এ ভবনের মালিকপক্ষ রাজউক ও এলাকার সাধারন জনগনকে কোন প্রকার তোয়াক্কা না করে, নিজেদের ইচ্ছেমত ডেভিয়েশন করে, ভবন নির্মানের কারনে যেকোন সময় রানা প্লাজার মত বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ভবনের দায়িত্ব রত কেয়ারটেকার ও কন্ট্রাকটর জানান, এই ভবন মালিক বিগত দিনে প্রবাশে ছিলেন বর্তমানে এই ভবনের কাজ করেন কিন্তু তিনি ৭ কাঠা জমিতে আবাসিক ভাবে ৯ তলা ভবন নির্মানের অনুমোদন নিয়ে কাজ আরম্ব করে বর্তমানে ৭ তলার ছাদ ঢালাইয়ের কাজ শেষ করে ৮ তলার কাজ চলমান রয়েছে। ডেভিয়েশ জানতে চাইলে তারা বলেন ,ভবন মালিক আমাদের ওর্য়াকিং প্লেনের যে নকশা দিয়েছেন তা দিয়েই আমরা কাজ করে যাচ্ছি। তবে কোন দিকে কত টুকু ডেভিয়েশ করা হচ্ছে  এ ব্যাপারে  ভবন  মালিক ও রাজউক বলতে পারবে।

এ বিষয়ে অনুসন্ধানে আরো জানাযায়, রাজউকের ইমারত পরিদর্শক নাজিম উদ্দিন দুই বার এসে কাজ বন্ধ রাখার জন্য নির্দেশ দেয় এবং তারা ইমাম উদ্দিনকে রাজউকে গিয়ে দেখা করতে বরে। কিন্তু ইমাম উদ্দিন রাজউকে না গিয়ে কনট্রেকটার মনিরকে দিয়ে রাজউকের কোন এক কর্মকর্তার সাথে কথা বলে বিষয়টি মেটানোর জন্য তদবির করে যাচ্ছে ।

এ বিষয়ে জানতে রাজউক উত্তরা জোন-২ এর অথরাইজড অফিসার প্রকৌশলী শেগুপ্তা শারমিন আশরাফ এর মোবাইলে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি।

Please Share This Post in Your Social Media

কপিরাইটঃ ২০১৬ দৈনিক অন্যদিগন্ত এর সকল স্বত্ব সংরক্ষিত।
Design & Developed BY It Host Seba