বুধবার, ২৮ অক্টোবর ২০২০, ০২:৫৪ অপরাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ
বৃদ্ধাশ্রম’ নিয়ে বাংলাদেশে প্রথমবারের মত র‌্যাপ গান নির্মাণ করছেন তরুণ নির্মাতা জাহিদ হাসান রাতুল প্রাণনাশের হুমকির অভিযোগে মহিলা কাউন্সিলর সৈয়দা রোকসানা ইসলাম চামেলীর বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন স্বপ্নধরার চোখধাঁধানো সাইনবোর্ডে প্রতারণা! শেরপুরের শ্রীবরদীর নির্যাতিত শিশু গৃহকর্মী সাদিয়ার বাড়িতে এখনও চলছে শোকের মাতম : খুনির ফাঁসি দাবী এলাকাবাসীর হাটহাজারীতে চোরাই পাচারকৃত চিড়াই কাঠ জব্দ সুমন খানের বারুদে বোলিং, ১৭৩ রানেই আটকে গেল শান্তর দল মাস্ক না পরলে সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে সেবা নয় অন্যদিগন্ত এর সম্পাদককে হামলা মামলার হুমকি থানায় জিডি বানিয়াচংয়ে প্রেমিকার লাশ ফেলে পালিয়ে যাবার সময় ঘাতক প্রেমিক আটক দুঃসময়ে কারামুক্ত করতে এগিয়ে আসেন রফিক-উল হক : প্রধানমন্ত্রী

গণপূর্তে ১০ মাসে ছয়বার বদলি বানিজ্যের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক॥
গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন গণপূর্ত অধিদফতরের বেশ কয়েকজন প্রকৌশলীকে নিয়ম বহির্ভূতভাবে একাধিকবার বদলির অভিযোগ উঠেছে। এর মধ্যে দুজন প্রকৌশলীকে ১০ মাসের মধ্যে ছয়বার বদলি করা হয়েছে। কোনো কারন ছাড়াই এরকম বদলির ফলে গণপূর্ত অধিদফতরে প্রকৌশলীদের মধ্যে অস্থিরতা বিরাজ করছে।
এরকম বদলির আদেশের যাবতীয় কাগজপত্র আমাদের হাতে রয়েছে।
গত ৫ জানুয়ারি গণপূর্ত বিভাগের উপ বিভাগীয় প্রকৌশলী গোলাম বাকী ইবনে হাফিজকে ঢাকা গণপূর্ত উপ বিভাগ-৫ থেকে খুলনা গণপূর্ত উপ বিভাগ-৩ এ বদলি করা হয়। এর মাত্র ৭ দিনের মাথায় ১২ জানুয়ারি খুলনা থেকে ঢাকা-৪ বদলি করে সংযুক্ত করা হয়। এরপর ২ মার্চে আরেক আদেশে ঢাকা-৪ এ রিজার্ভ হিসেবে রাখা হয়। গত ৩১ আগস্ট এক আদেশে ঢাকা গণপূর্ত বিভাগ-০৪ রিজার্ভ থেকে নোয়াখালী গণপূর্ত উপ বিভাগ-১ এ বদলি করা হয়। গত ৫ অক্টোবর নোয়াখালী থেকে ঢাকা গণপূর্ত বিভাগ-০৪ এ সংযুক্ত করা হয় এবং একই দিন বান্দরবানের লামা গণপূর্ত উপ-বিভাগে বদলি করা হয়।
এর আগে ২০১৯ সালের ১৫ সেপ্টেম্বর ঢাকা গণপূর্ত বিভাগ-০৪ থেকে গোলাম বাকী ইবনে হাফিজ পদোন্নতি পেয়ে উপবিভাগীয় প্রকৌশলী হিসেবে ঢাকা গণপূর্ত উপবিভাগ-৫ এ পোস্টিং পায়।
গোলাম বাকী ইবনে হাফিজের মতো আল আমিন নামে এক নির্বাহী প্রকৌশলীকেও একইভাবে গত ১০ মাসে ৫/৬ বার বদলি করা হয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে। এছাড়া ওয়াহিদ বিন ফরহাদ, সালেহ উদ্দিন আহমেদ, মোঃ হেলাল উদ্দিন, কামরুল হাসান, কাজী শরীফ উদ্দিন আহমেদ, আল আমিন, মোঃ নুরুল হাসান, আবু সায়েম খান সহ ১০/১৫ জন প্রকৌশলীকে গত ১০ মাসে একাধিকবার বদলির অভিযোগ উঠেছে।
বদলি হওয়া প্রকৌশলীদের মধ্যে উপ বিভাগীয় প্রকৌশলী গোলাম বাকী ইবনে হাফিজকে ফোন করা হলে তিনি এ বিষয়ে কথা বলতে রাজি হননি। আর নির্বাহী প্রকৌশলী আল আমিনের ফোন বন্ধ পাওয়া গেছে।
পূর্তভবনের কয়েকজন কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, প্রধান প্রকৌশলী মোঃ আশরাফুল আলমের বদলী বানিজ্যের অংশ হিসেবে তাদের এরকম বদলি করা হয়েছে।
তারা বলেন, তার সাথে তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী (সংস্থাপন) নন্দিতা রাণী সাহা এবং উপ বিভাগীয় প্রকৌশলী কল্যাণ কুমার কুণ্ডু মিলে মোটা অংকের টাকা নিয়ে বদলিকৃত প্রকৌশলীদের অধিদফতর থেকে বিভিন্ন কার্যালয়ে বদলি করে অন্য প্রকৌশলীদের এখানে বসিয়েছেন।
১০ মাসে ৬ বার বদলির বিষয়ে জানতে চাইলে গণপূর্ত বিভাগের সংস্থাপন শাখার তত্তাবধায়ক প্রকৌশলী নন্দিতা রাণী সাহা সাংবাদিকদের বলেন, এরকম হয়েছে নাকি? কার বেলায় হয়েছে বলবেন? তবে হয়ে থাকলেও আমার কোনো হাত নেই। যা হয়েছে সব উর্ধতন কর্মকর্তাদের নির্দেশেই হয়েছে। আপনি উর্ধতন কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলতে পারেন।
নিয়োগের পর আপনি তো গত ২০ বছর ধরে একটানা ঢাকায় চাকরি করছেন? আপনার তো কোথাও বদলি হলো না- এমন প্রশ্নের জবাবে নন্দিতা রাণী সাহা বলেন, আমার চাকরির বয়স ২০ এর একটু কম হয়েছে। তবে বদলি হয়নি। সেটি ভিন্ন ব্যাপার।
এ বিষয়ে জানতে প্রধান প্রকৌশলী মোঃ আশরাফুল আলমকে ফোন করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি।
দেশের আলোচিত রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ প্রকল্পের আবাসিক ভবনের জন্য বালিশসহ ১৬৯ কোটি টাকার কেনাকাটায় দুর্নীতির ঘটনা, বিতর্কিত ঠিকাদার জিকে শামীমের মতো ঠিকদারদের উত্থানের কেন্দ্রস্থল গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন গণপূর্ত অধিদফতর। কর্মকর্তাদের অনিয়মে অধিদফতরে বছরজুড়েই থাকছে নানা বিতর্ক।

Print Friendly, PDF & Email

Please Share This Post in Your Social Media

কপিরাইটঃ ২০১৬ দৈনিক অন্যদিগন্ত এর সকল স্বত্ব সংরক্ষিত।
Design & Developed BY It Host Seba Mobile: 01625324144
Shares