সোমবার, ১৯ এপ্রিল ২০২১, ০৯:১৮ অপরাহ্ন

গৌরীপুরে মামলা তুলে নিতে বাদীকে হুমকির অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক :
ময়মনসিংহের গৌরীপুরে মোজাম্মেল হত্যা মামলার বাদীকে প্রাণনাশের হুমকি দেওয়া হয়েছে। এ ঘটনায় জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে গত ২৬ ফেব্রুয়ারি গৌরীপুর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন মামলার বাদী আব্দুল্লাহ খন্দকার (৪৫)।

সাধারণ ডায়েরি সূত্রে জানা গেছে, প্রতিবেশী মহর উদ্দিন (৬০), আব্দুল হান্নান (৫০), আব্দুল রউফ (৫০), জামাল উদ্দিন (৪৫), বিল্লাল (৫০), আনার (৪৫), হাদিস (৪০), আবুল হাশেম (৬০) ও শাহ্জাহান (৪০) প্রমুখ ব্যক্তিরা জোর পূর্বকভাবে জমি দখল করে রাখায় পূর্ব থেকেই তাদের সাথে বিরোধ ছিল আব্দুল্লাহদের।

উক্ত বিরোধের জেরে ২০১৩ সালের ১৫ জুন কুপিয়ে হত্যা করা হয় আব্দুল্লাহর ছোট ভাই মোজাম্মেলকে। ওই ঘটনায় প্রতিপক্ষ ২১ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়। বর্তমানে মামলাটি আদালতে সাক্ষ্যগ্রহণ পর্যায়ে রয়েছে।

আব্দুল্লাহ খন্দকার বলেন, পূর্ব থেকেই জমি ও মোজাম্মেল হত্যা মামলার বিষয়াদি নিয়ে বর্ণিত বিবাদীরা আমার সাথে বিরোধ পোষণ করে আসছে। উক্ত বিরোধের জের ধরে বিবাদীরা বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ভাবে আমাকে হুমকি প্রদান করে আসছে।

মোজাম্মেল হত্যা মামলার স্বাক্ষীদেরকেও হুমকি দিচ্ছে যেন তারা স্বাক্ষী না দেয়। জামাল গংদের হুমকিতে আমি নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। জীবনের ভয়ে বাড়ি ঘর ছেড়ে পালিয়ে বেড়াতে হচ্ছে আমাকে। সাবেক ইউপি সদস্য জামাল গংয়ের নেতৃত্বে মোজাম্মেল হত্যা মামলার আসামীরা আমার জমিতে চাষাবাদ ও বাগান থেকে গাছ ছাঁটাই করতে বাঁধা দিচ্ছে।

সর্বশেষ, গত ১৮ ফেব্রুয়ারি বিকাল ৫টার দিকে আমি আমার ছিলিমপুর গ্রামে গেলে আমাকে দেখতে পেয়ে স্থানীয় স্কুল মাঠে আটকিয়ে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ ও হত্যার হুমকি প্রদান করে আসামীরা।

এ বিষয়ে জানতে চেয়ে সাবেক ইউপি সদস্য জামালের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি এ সব অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আব্দুল্লাহ খন্দকারের সাথে আমার কোন বিরোধ নেই। আমার চাচার সাথে জমি নিয়ে তার বিরোধ ছিলো। মোজাম্মেল হত্যা মামলায় আমাকেও আসামী করা হয়। বর্তমানে আমি বাড়ি থাকি না, এ বিষয়ে আমি কিছু জানি না।

জিডির তদন্তকারী কর্মকর্তা গৌরীপুর থানার এএসআই এসএম তোফায়েল বলেন, থানায় সাধারণ ডায়েরি হওয়ার পর তদন্তের জন্য আদালতের অনুমতি চেয়ে আবেদন করা হয়েছে। অনুমতি পেলে তদন্ত করা করা হবে। তারপর প্রশিকিউশন দাখিল করা হবে।

Print Friendly, PDF & Email

Please Share This Post in Your Social Media

কপিরাইটঃ ২০১৬ দৈনিক অন্যদিগন্ত এর সকল স্বত্ব সংরক্ষিত।
Design & Developed BY It Host Seba  
Shares