রবিবার, ২৫ Jul ২০২১, ১০:০৭ অপরাহ্ন

জিম্বাবুয়েকে ৪৭৭ রানের লক্ষ্য দিল বাংলাদেশ

অন্যদিগন্ত ডেস্ক ।।

প্রথম ইনিংসে ব্যর্থতার পর দ্বিতীয় ইনিংসে টপ অর্ডাররা দারুণ ব্যাটিং করেছেন। হারারেতে স্বাগতিক জিম্বাবুয়ে বোলারদের বিপক্ষে আজ চতুর্থদিন রীতিমত টি-টোয়েন্টি স্টাইলে ব্যাট করেছেন বাংলাদেশে দুই টপ অর্ডার সাদমান ইসলাম এবং নাজমুল হোসেন শান্ত। যে কারণে দেখা যাচ্ছে, শেষ ১০ ওভারে স্কোরবোর্ডে তারা রান যোগ করেছেন ৮০টি। রান তোরার গড় ৮ করে।

লিড ৪০০ পার হয়ে যাওয়ার পরও অধিনায়ক মুমিনুল ইসলাম অপেক্ষায় ছিলেন শান্ত এবং সাদমানের সেঞ্চুরির জন্য। সেই কাঙ্খিত সেঞ্চুরির দেখা পেয়েছেন দু’জনই।

ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি করেন সাদমান। তার পর ঝড়ের বেগে ব্যাট চালিয়ে রান তোলেন শান্তও। ফলে ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় সেঞ্চুরি তুলে নিতে খুব বেশি অপেক্ষা করতে হয়নি তাকে।

এই দু’জনের সেঞ্চুরি পূরণ হওয়ার পরপরই ইনিংস ঘোষণা করেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মুমিনুল হক এবং স্বাগতিক জিম্বাবুয়ের সামনে জয়ের জন্য ৪৭৭ রানের বিশাল লক্ষ্য ছুঁড়ে দিয়েছেন। দ্বিতীয় ইনিংসে ১ উইকেট হারিযে বাংলাদেশ সংগ্রহ করে ২৮৪ রান। শান্ত ১১৭ এবং সাদমান অপরাজিত ছিলেন ১১৫ রানে।

এর আগে সাদমান ইসলাম সেঞ্চুরির পর দ্রুত গতিতে রান তুলে সেঞ্চুরি তুলে নেন নাজমুল হোসেন শান্তও। ক্যারিয়ারে এটা শান্তর দ্বিতীয় সেঞ্চুরি। টানা বেশ কয়েকটি ইনিংসে বাজে ব্যাটিং করার পর অবশেষে রানের দেখা পেলেন তিনি। এবার জিম্বাবুয়েকে পেয়ে হারারেতে তুলে নিলেন ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় সেঞ্চুরি।

শান্তর আগে ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি করেন ওপেনার সাদমান ইসলাম। ১৮০ বল খেলে সেঞ্চুরির দেখা পান তিনি। তবে শান্ত সেঞ্চুরি করেন একেবারে ওয়ানডে স্টাইলে ব্যাট করে। ১০৯ বলে সেঞ্চুরি আসে তার ব্যাটে।

প্রথম ইনিংসের ব্যর্থতা ঝেড়ে ফেলে দ্বিতীয় ইনিংসে রানের দেখা পেয়েছে বাংলাদেশের টপঅর্ডার। দুই ওপেনার সাদমান ইসলাম ও সাইফ হাসানের পর তিন নম্বরে নাজমুল হোসেন শান্তুও করছেন সাবলীল ব্যাটিং। যার সুবাদে বাংলাদেশের লিড সাড়ে চারশ ছাড়িয়ে গেছে।

আগের দিন ১৭ ওভার খেলে কোনো উইকেট না হারিয়ে ৪৫ রান করেছিল বাংলাদেশ। আজকের প্রথম সেশনে ৩২ ওভার ব্যাটিং করে ১ উইকেট হারিয়ে ওভারপ্রতি প্রায় ৪ গড়ে তুলেছে ১২৪ রান। সাইফ আউট হয়েছেন ৪৩ রান করে। সাদমান ৭২ ও শান্ত অপরাজিত রয়েছেন ৪৫ রানে।

আজকের দিনের শুরু থেকেই ইতিবাচক ব্যাটিং করছিলেন সাইফ ও সাদমান। দুজনের ব্যাট থেকেই এসেছে দৃষ্টিনন্দন কিছু শট। একপর্যায়ে মনে হচ্ছিল, দুজনই খেলবেন বড় ইনিংস। কিন্তু রিচার্ড এনগারাভার করা দিনের ১৪তম ওভারের দ্বিতীয় বলে দলীয় ৮৮ রানের মাথায় বিদায়ঘণ্টা বাজে সাইফের।

অফস্ট্যাম্পের বাইরের ডেলিভারিতে জায়গায় দাঁড়িয়ে স্কয়ার কাট খেলেছিলেন সাইফ। কিন্তু সেখানে প্রস্তুত ছিলেন ডিয়ন মায়ার্স। বলটি তালুবন্দী করে সমাপ্তি ঘটান সাইফের ৬ চারের মারে খেলা ৯৫ বলে ৪৩ রানের ইনিংসের। সম্ভাবনা জাগিয়েও ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় ফিফটি করা হয়নি এ ডানহাতি ওপেনারের।

সাইফ ফিরে গে

Please Share This Post in Your Social Media

কপিরাইটঃ ২০১৬ দৈনিক অন্যদিগন্ত এর সকল স্বত্ব সংরক্ষিত।
Design & Developed BY It Host Seba