সোমবার, ১৯ এপ্রিল ২০২১, ০৯:১৯ অপরাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ

মূখে তাবলীগ, গোপনে ক্যাসিনো, র‌্যাবের অভিযান, আটক- ৩১, (পর্ব- ১)

যোবায়ের হোসাইন ।।

রাজধানীর উত্তরায় শ্রমিক লীগের ঢাকা মহানগর উত্তরের সহ-সভাপতি মাজেদ খাঁনের মালিকানাধীন গোপন ক্যাসিনো ‘রিভার ওয়েভ’ হোটেলে গত রোববার রাতে অভিযান চালিয়েছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন – ৪ (র‌্যাব ৪)।

১০ নং সেক্টর রানাভোলা এভিনিউ সড়কের ২২১ নং হাউজের, ২৩/২৪ নং রোডসংলগ্ন ‘রিভার ওয়েভ’ হোটেল অ্যান্ড রেস্টুরেন্টে গভীর রাত পর্যন্ত এ অভিযান চালানো হয়। অভিযানে নগদ টাকা, মাদক এবং ক্যাসিনো সরঞ্জামসহ ৩১ নারী-পুরুষকে আটক করে র‌্যাব। আটকৃতদের মধ্যে দেহ ব্যবসার সঙ্গে জড়িত পাঁচজন তরুনী, ২৬ জন পুরুষ এবং বিদেশি নাগরিকও ছিল বলে জানা যায়। অভিযানে মদ, নগদ অর্থ ও জুয়া খেলার বিভিন্ন সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়। রিভার ওয়েভ হোটেল এর বাড়ীর মালিক মাজেদ খাঁন নিজেই। বাড়িটি উত্তরায় অবৈধ ব্যবসার হোটেল হিসেবে পরিচিত । এর সিইও হিসেবে নিয়োগ দেন জুয়েল নামে এ এক ব্যক্তিকে, যার বিরুদ্ধে মাদক সংশ্লিষ্টতা নিয়ে একাধিক দৈনিক ও ম্যাগাজিনে সংবাদ প্রকাশিত হয়। প্রকাশিত সংবাদে রিভার ওয়েভ হোটেলে মাদক, জুয়া ও বেশ্যালয়ের ভয়াভহ চিত্র তুলে ধরা হয়।

মাজেদ খাঁনের সাবেক আমলনামা :

গত ২১/১১/ ২০১৯ তারিখে মাদক চোরাচালান অভিযোগে ডিবির হাতে গ্রেফতার দুই জনসহ মাজেদ খাঁনকে প্রধান আসামী করে ডিবি পুলিশের সহকারী পরিদর্শক নাসির উদ্দিন বাদী হয়ে উত্তরা পশ্চিম থানায় একটি মামলা দায়ের করেন, মামলা নং -৩৭, এ ছাড়াও মাজেদ খাঁনের বিরুদ্ধে হত্যা-খুন, ধর্ষনসহ একাধিক মামলা রয়েছে। ১৯৯৯ সালে আওয়ামীলীগের শাসনামলে তৎকালীন বৃহত্তর উত্তরা থানায় ১টি, মামলা নং -২৫(১১)৯৯। ২০০৩ সালে বিএনপির সময়কালে বিমান বন্দর থানায় ১টি মামলা দায়ের হয়, মামলা নং -৩৮ (১)০৩ এবং তৎকালীন বৃহত্তর উত্তরায় থানায় আরো ২টি মামলা দায়ের হয়, মামলা নং ৪৬(৫)০২ এবং ০১(০৭)০৩, এছাড়াও রয়েছে শতাধিক জিডি ও অভিযোগ।

মাজেদ খাঁন ও তার ছেলে নাজিমের চাঁদাবাজীতে অতিষ্ঠ ব্যবসায়ীরা :

রাজউক কর্মচারি সমিতি কর্তৃক নির্মিত রাজউক কমার্শিয়াল কমপ্লেক্ম মার্কেটে জোড়পূর্বক সভাপতির পদ দখল করে ব্যবসায়ীদের থেকে হুমকি দিয়ে চাঁদা নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে মাজেদ খাঁনের বিরুদ্ধে। যে কোন দোকান ক্রয় বিক্রয়ে মাজেদ খাঁনকে ৫০ ভাগ অর্থ দেওয়া বাধ্যতামূলক। মার্কেটটির আন্ডার গ্রাউন্ডে দুটি দোকান ক্রয় – বিক্রয়ে মাজেদ খানকে ১০ লক্ষ টাকা চাঁদা দিতে হয়েছে। চাঁদা দাবির প্রতিবাদে ৫-১১-২০২০ইং তারিখে মিন্নত নামে এক ব্যক্তি মাজেদ খাঁনের বিরুদ্ধে উত্তরা পশ্চিম থানায় একটি সাধারন ডায়েরী করেন, ডায়েরী নং ৪১৩। মাজেদ খানের দাবিকৃত চাঁদা তার ম্যানাজার জিন্নাত আলীকে বুঝিয়ে দেওয়ার দিন প্রতিবেদক যোবায়ের হোসাইন গোপন কয়েকটি ছবি ধারণে সক্ষম হন। মার্কেটে ব্যবসায়ীদের থেকে এভাবে জোড় পূর্বক চাঁদা আদায় প্রসঙ্গ নিয়ে রাজউক কর্মচারি সমিতির সাধারন সম্পাদক আওরঙ্গ জেব নান্নুর সাথে প্রতিবেদক যোবায়ের হোসাইন কয়েকবার সাক্ষাত করেন। সাক্ষাতে তিনি প্রতিবেদককে জানান, মাজেদ খাঁনের বিরুদ্ধে কোন বিষয় নিয়ে প্রতিবাদ করলে আমার রুহু নিয়ে টানা হেছড়া শুরু হয়। তার কাছে রাজউক কর্মচারি সমিতি ৩ কোটি টাকা পাবে। একটি টাকাও উঠানো যাচ্ছে না। অন্য বিষয় নিয়ে প্রতিবাদ করে কি হবে।

তাবলীগ জামাতের আড়ালে অবৈধ ব্যবসা ঃ

মাজেদ খাঁনের ছেলে নাজিম খাঁন বর্তমানে একজন ধার্মিক ব্যক্তি। সর্বদাই তাবলীগ জামাতের চিল্লা, নুসরত, ৫ কাজসহ হালকা জিকিরে থাকেন। তার বাবা মাজেদ খাঁনের সকল দুষ্কর্ম মিষ্টি ছানার প্রলেপ দিয়ে ঢেকে রাখার দায়িত্ব তার। যাকে যে ভাবে নিয়ন্ত্রন করতে হবে, তাকে সেভাবেই নিয়ন্ত্রন করেন তিনি। গত তিন মাস যাবৎ ধারাবাহিকভাবে তাবলীগ জামাতের চিল্লায় রয়েছেন মাজেদ খাঁন। তাবলীগ জামাতের চিল্লায় থেকেই নিয়ন্ত্রন করতেন তার অবৈধ ক্যাসিনো। ক্যাসিনোতে র‌্যাবের অভিযানের দিন তিনি একই সেক্টরের একই রোডের একটি মসজিদে চিল্লার জামাতে ছিলেন। মসজিদে বসেই তিনি সবকিছুর খোঁজখবর নেন ও নিয়ন্ত্রন করেন।

প্রতিবেদক যোবায়ের হোসাইনকে হত্যার হুমকি :

রাজউক মার্কেটে দোকান ক্রয়-বিক্রয়ে মাজেদ খানের হস্তক্ষেপ বিষয়ে সরেজমিনে প্রতক্ষ দেখতে গেলে একাধিক ব্যক্তির সামনে নাজিম খান প্রতিবেদকের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে বলেন, তাকে মনে চায় ছাদের ঢালাই ভেঙ্গে দাফন করে রাখি।

সাংবাদিকদের হত্যার হুমতি :

মাজেদ খানের রিভার ওয়েভ হোটেল নামের ক্যাসিনোর মাদক, জুয়া ও বেশ্যালয়ের সংবাদ প্রকাশ করায় সাংবাদিকদের গুলি ও পা দিয়ে পিষে মারার সরাসরি হমকি প্রদান করেন।

Print Friendly, PDF & Email

Please Share This Post in Your Social Media

কপিরাইটঃ ২০১৬ দৈনিক অন্যদিগন্ত এর সকল স্বত্ব সংরক্ষিত।
Design & Developed BY It Host Seba  
Shares