হাটহাজারীতে ছেলেধরা আতংক গুজব ছড়িয়ে গণপিঠুনি,দৌড়ে প্রাণ বাঁচল যুবকের | অন্যদিগন্ত

শুক্রবার, ২৩ অগাস্ট ২০১৯, ১২:২৭ অপরাহ্ন

হাটহাজারীতে ছেলেধরা আতংক গুজব ছড়িয়ে গণপিঠুনি,দৌড়ে প্রাণ বাঁচল যুবকের

মাহমুদ আল আজাদ, হাটহাজারী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি ॥

চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে ছেলে ধরা (কল্লা কাডনি) গুজব ছড়িয়ে মুবিন (১৯) নামের এক যুবককে পিটিয়ে গুরুত্বর জখম করেছে পৌরসভার মাটিয়া মসজিদ এলাকার ভাড়া বাসায় বসবাসকারী কিছু ব্যক্তি।

শুক্রবার (২৬জুলাই) রাত সাড়ে দশটার দিকে গুজব রটিয়ে এ ঘটনা সংগঠিত করে বলে প্রাপ্ত সংবাদে প্রকাশ।স্থানীয় কিছু লোকজন আহত যুবককে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগে নিয়ে গেলে অবস্থার অবনতি দেখলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে চমেক হাসপাতালে প্রেরন করেন। দ্রুত খবর পেয়ে হাটহাজারী মডেল থানার অপারেশন তৌহিদ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে কাজল নামের এক ব্যক্তিকে থানায় নিয়ে যান। গুরুত্বর আহত মুবিন (১৯) উত্তর মিরের খীল খন্দকার পাড়ার আবদুস শুক্কুরের পুত্র। মুবিন চবি ২ নং গেইট এলাকায় একটি মোটরসাইকেল শো-রুমে চাকরী করেন। সেখানে পরিবার নিয়ে বাসা ভাড়ায় থাকেন।

স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শী বরাত জানা যায়, শুক্রবার রাতে মাটিয়া মসজিদ এলাকার পশ্চিমে পূর্ব চন্দ্রপুর রেল লাইনে ঘুরাঘুরি করছিল। হঠাৎ কিছু লোক তাকে প্রথমে চোর বলে মারধর করে। সে দৌড়ে মাটিয়া মসজিদের পশ্চিমে জমির কলোনীতে ঢুকে একটি পুকুরে পানিতে ডুব দিয়ে আত্মগোপন করে।

এদিকে হঠাৎ ওই লোকগুলো ছেলেধরা গুজব ছড়িয়ে দিলে প্রায় কলোনির নারী পুরুষ সবাই লাটি, দা,বটি নিয়ে বের হয়ে তাকে খুঁজতে থাকে। এক পর্যায়ে পুকুরটির পাড়ে জড়ো হওয়া কয়েকশত লোকজন সুর চিৎকার করলে সে পুকুর থেকে আবারো দৌড় দিলে অন্ধাকারের মধ্যে তাকে আঘাত করে। সে প্রাণ রক্ষায় গুরুত্বর আহত হয়ে আব্বাছিয়ার পুলে এসে একটি চায়ের দোকানে আশ্রয় নেয়। এমনাবস্থা তার মাথায় জখম হয়।শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতপ্রাপ্ত হয়।স্থানীয় কিছু ব্যক্তি দ্রুত উদ্ধার করে হাটহাজারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স জরুরী বিভাগে নিয়ে গেলে ডাঃ রিদুয়ার তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়। এক পর্যায়ে আহত মুবিন বমি করলে ও মাথায় অতিরিক্ত আঘাতের কারনে আশংকাজনক বলে তাকে চমেকে রেফার করে।

এদিকে মডেল থানা অপেরেশন মোঃ তৌহিদ সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে হাসপাতালে এসে আহত যুবককে দেখেন। ঘটনার বিবরনে প্রতিবেদককে বলেন, যতটুকু জেনেছি গুজব ছড়িয়ে ছেলেটির উপর হামলা করেছে। তদন্ত করা হচ্ছে।

স্থানীয় হারুন, নাছির, জহির বলেন, ছেলেধরা বলে চিৎকার শুনলে আমরা দেখতে যায়। হঠাৎ মুবিনকে লাটিসোটা নিয়ে গুরুত্বর আঘাত করলে আমরা থাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাই। আর মাত্র কয়েক মিনিট মারধর করলে তার প্রাণ চলে যেত। গুজব রটিয়ে যারা এ অবস্থা করেছে তাদের কঠোর শাস্তি দিতে উপস্থিত উৎসুক জনতা দাবি জানান।

হাটহাজারী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বেলাল উদ্দিন জাহাঙ্গীর বলেন, গুজব ছড়িয়ে একটি ছেলেকে মারধর করে গুরুত্বর আহত করেছে বলে খবর পেয়েছি। তবে মোবাইল চুরির ঘটনায় তাকে মারধর করেছে। পুলিশ তদন্ত করে আইনানুক ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলে তিনি জানান।

Please Share This Post in Your Social Media

কপিরাইটঃ ২০১৬ দৈনিক অন্যদিগন্ত এর সকল স্বত্ব সংরক্ষিত।
Design & Developed BY Seskhobor.Com
Shares
CrestaProject