ডেঙ্গু আক্রান্ত হলে হৃদরোগীদের করনীয় কী? | অন্যদিগন্ত

বুধবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৯, ০১:২৫ অপরাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ
পেঁয়াজের বাজার নিয়ন্ত্রণে এসেছে, দাবি শিল্পমন্ত্রীর  নারায়ণগঞ্জ টেকনিক্যাল স্কুলের সীমানা প্রাচীর ধসে প্রাণ হানির আতঙ্কে ৩ হাজার মানুষ লালমনিরহাট সদর উপজেলায় স্কুল ছাত্রীকে ৫দিন আটকে রেখে গনধর্ষণ ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের সিনেমা ফিরিয়ে দিলেন পরিণীতি ট্রেন দুর্ঘটনায় আহত শিশুটির পরিচয় মিলেছে, নিখোঁজ মা-দাদি বসুন্ধরা পেপারের লেনদেন পূর্ব ৬৯ কোটি টাকার মুনাফা নামল ২৯ কোটিতে ইডেনের ইনডোর উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ট্রেন দুর্ঘটনায় রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী শোক কসবার ট্রেন দুর্ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৬, তদন্ত কমিটি শহীদ নুর হোসেনকে নিয়ে রাঙ্গার আপত্তিকর মন্তব্যে প্রতিবাদে ফুসে উঠেছে রংপুরের যুবলীগ

ডেঙ্গু আক্রান্ত হলে হৃদরোগীদের করনীয় কী?

অন্যদিগন্ত ডেস্ক ॥

দেশে বর্তমানে ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে ডেঙ্গু রোগ। প্রতিদিনই ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছেন অনেক মানুষ।

ডেঙ্গু জ্বরের ব্যাপকতা বেড়ে যাওয়ার কারণে হৃদরোগীদের নিয়ে বাড়তি সতর্কতার প্রয়োজন বলে মনে করছেন চিকিৎসকরা। ডেঙ্গু আক্রান্ত হলে হৃদরোগীদের করণীয় বিষয়ে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা ইউএনবি।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ রাজিব কুমার সাহা বলেন, যথাসময়ে পদক্ষেপ না নিলে ডেঙ্গু জ্বর প্রাণঘাতী হয়ে উঠতে পরে এবং হৃদরোগে আক্রান্ত কেউ যদি এ জ্বরে আক্রান্ত হন, তাহলে তাঁকে আরো দ্রুততার সঙ্গে চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া উচিত।

ডেঙ্গু আক্রান্ত হলে কী পদক্ষেপ নেবেন হৃদরোগীরা

রাজিব কুমার সাহা বলছেন, যিনি এরই মধ্যেই হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েছেন বা চিকিৎসা নিচ্ছেন, তাঁদের সব সময় সতর্ক থাকতে হবে এডিস মশা যাতে কামড়াতে না পারে। ডেঙ্গুর সাধারণ লক্ষণ, যেমন—অনেক জ্বর, বমি হওয়া, শরীরে র‍্যাশ ওঠা কিংবা পাতলা পায়খানা হলে দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে। খুব দ্রুত না এলে হৃদরোগীর জন্য পরিস্থিতি ভয়াবহ হয়ে উঠতে পারে। কারণ, হৃদরোগীরা যেসব ওষুধ সেবন করে, সেগুলো সাধারণত রক্ত তরল করার জন্য। এগুলো অ্যান্টিপ্লাটিলেট। আবার ডেঙ্গু হলে প্লাটিলেট ভেঙে যায়। তাই দুটি মিলে কী হতে পারে, সহজেই বোঝা যায়। তাই জ্বরের লক্ষণ বোঝা গেলেই দ্রুত পরীক্ষা-নিরীক্ষা করিয়ে দেখতে হবে।

ঝুঁকি কোথায়?

রাজিব কুমার সাহা হৃদরোগে আক্রান্তদের ডেঙ্গু আক্রান্ত হওয়ার কয়েকটি ঝুঁকির কথা উল্লেখ করেন। এগুলো হচ্ছে :

১. প্রেশার কমে যাওয়া।

২. হাইপোটেনশন থেকে বিপদ হওয়ার ভয়।

৩. ডেঙ্গু থেকে লিভার আক্রান্ত হতে পারে। বিলুরুবিন বেড়ে যাতে পারে।

৪. রক্তের অণুচক্রিকায় রক্তক্ষরণের ঝুঁকি বেড়ে যাওয়া।

৫. হৃদরোগ ছাড়াও যাঁরা উচ্চ রক্তচাপ ও হার্ট ফেইলিউরের ওষুধ নিচ্ছেন, তাঁদের সেসব ওষুধ রক্তচাপ কমিয়ে দিতে পারে।

হৃদরোগ ও ডেঙ্গু : কোনটির চিকিৎসা আগে?

ডা. রাজিব কুমার সাহা বলছেন, প্রথমে জ্বর নিয়ন্ত্রণে এনে শরীরের ফ্লুয়িড ম্যানেজমেন্ট (তরলের ব্যবস্থাপনা) ঠিক রাখতে হবে। প্রেশার ঠিক করতে হবে। জ্বর কমে গেলে হার্টের চিকিৎসায় যথাযথ পদক্ষেপ নিতে হবে।

সে কারণেই হৃদরোগে যাঁরা ভুগছেন, তাঁদের অধিকতর সতর্ক থাকারও পরামর্শ দিয়েছেন তিনি।

আবার ডেঙ্গু জ্বর সেরে গেলে হৃদরোগের চিকিৎসার যেসব ওষুধ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল, যত দ্রুত সম্ভব সেসব ওষুধ আবার চালু করতে হবে, তবে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে।

Print Friendly, PDF & Email

Please Share This Post in Your Social Media


কপিরাইটঃ ২০১৬ দৈনিক অন্যদিগন্ত এর সকল স্বত্ব সংরক্ষিত।
Design & Developed BY Seskhobor.Com
Shares
CrestaProject