নবোদয় সংঘের উদ্যোগে জাতীয় শোক দিবস পালিত | অন্যদিগন্ত

বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৯:১৩ পূর্বাহ্ন

নবোদয় সংঘের উদ্যোগে জাতীয় শোক দিবস পালিত

ষ্টাফ রিপোর্টার ॥

শোক, শ্রদ্ধা আর ভালোবাসায় স্বাধীনতা ও সাহসের প্রতীক হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালীর জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।

২৯ আগস্ট ২০১৯ রোজ বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানী মোহাম্মদপুর নবোদয় সংঘ সংলগ্ন মাঠে নবোদয় সংঘের উদ্যোগে এ আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

নবদয় সংঘের সভাপতি নুরুল ইসলাম শাহেদ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ঢাকা মহানগর-উত্তর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ঢাকা-১৩ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মোঃ সাদেক খান, এমপি। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, ঢাকা মহানগর-উত্তর আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি আলহাজ্ব শেখ বজলুর রহমান।এ সময় বিশেষ বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন নবদয় সংঘের উপদেষ্টা ও মোহাম্মদপুর থানা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ফখরুদ্দিন আহমেদ বাচচু। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন নবদয় সংঘের সাধারণ সম্পাদক নিজামুল হক বাবু।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন, মোহাম্মদপুর থানা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মোঃ আনসার আলী, সহ-সভাপতি মোঃ আলাউদ্দিন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপ-কমিটির কার্যনির্বাহী পরিষদের সদস্য মোঃ এম. ওমর ফারুক’সহ প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে বক্তরা বলেন, ১৯৭৫ সালে ১৫ আগস্ট স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি, হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে নির্মমভাবে হত্যা করেছিল সেনাবাহিনীর কিছু উচ্ছৃঙ্খল ও বিপথগামী সদস্য। ঘাতকরা সেই রাতে শুধু বঙ্গবন্ধুকেই হত্যা করেনি, তাদের হাতে একে একে প্রাণ হারিয়েছেন বঙ্গবন্ধুর সহধর্মিণী বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব, বঙ্গবন্ধুর সন্তান শেখ কামাল, শেখ জামাল ও শিশু শেখ রাসেলসহ পুত্রবধূ সুলতানা কামাল ও রোজি জামাল।

পৃথিবীর এই জঘন্যতম হত্যাকাণ্ড থেকে বাঁচতে পারেননি বঙ্গবন্ধুর অনুজ শেখ নাসের, ভগ্নিপতি আবদুর রব সেরনিয়াবাত, তাঁর ছেলে আরিফ, মেয়ে বেবি ও সুকান্ত, বঙ্গবন্ধুর ভাগ্নে যুবনেতা শেখ ফজলুল হক মণি, তাঁর অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী আরজু মণি এবং আবদুল নাঈম খান রিন্টু ও কর্নেল জামিলসহ পরিবারের ১৬ জন সদস্য ও ঘনিষ্ঠজন।

আলোচনা সভায় বক্তরা বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারী পলাতক খুনিদের ইন্টারপোলের মাধ্যমে দেশে ফিরিয়ে এনে ফাঁসির রায় কার্যকর করার দাবি জানান।আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল শেষে সর্ব সাধারণকে তবারক খাওয়ানো হয়।

Please Share This Post in Your Social Media


কপিরাইটঃ ২০১৬ দৈনিক অন্যদিগন্ত এর সকল স্বত্ব সংরক্ষিত।
Design & Developed BY Seskhobor.Com
Shares
CrestaProject