৩ দফা দাবিতে জাবির প্রশাসনিক ভবন অবরোধ | অন্যদিগন্ত

বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর ২০১৯, ০৪:৪৮ অপরাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদ
প্রকৃ‌তিক দূ‌র্যো‌গে নয়, সরকারী ঘু‌র্ণিঝ‌রে নি‌শ্চিন্ন দিনাজপু‌রের বিরামপুর লালমনিরহাটে ৪০১ বোতল ফেন্সিডিল আটক,পলাতক মুলহোতা ফারুক একই উপ‌জেলায় ২ জন ইউ‌পি চেয়ারম্যান,একজন স্বর্ন পদক অন্য জন মহাত্নাগান্ধী পদক, তবুও অন্যায় কেন ? বড় ভাই প্রধানমন্ত্রী, ছোট ভাই প্রেসিডেন্ট শিখা অনির্বাণে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা পরিবহন ধর্মঘট স্থগিত, যান চলাচল শুরু দেড় ঘণ্টার চেষ্টায় রাজধানী মার্কেটের আগুন নিয়ন্ত্রণে নতুন সড়ক পরিবহন আইন বাতিলের দাবিতে চলছে পরিবহন শ্রমিকদের ধর্মঘট লবণের দাম বৃদ্ধি!গুজবে আটক ১৩৩। গুজবে কান না দেওয়ার জন্য আহবান মন্ত্রণালয়ের চাল ব্যবসায়ীদের উদ্দেশ্যে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে যা বললেন খাদ্যমন্ত্রী 

৩ দফা দাবিতে জাবির প্রশাসনিক ভবন অবরোধ

নিজস্ব প্রতিনিধি ॥

৩ দফা দাবিতে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে পূর্ব ঘোষিত নতুন ও পুরাতন প্রশাসনিক ভবন অবরোধ কর্মসূচী পালন করছেন অবরোধ করে রেখেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের একাংশ।

মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে ‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’ ব্যানারে এই অবরোধ শুরু করেন তারা। এতে কয়েকজন শিক্ষক সহ জাহাঙ্গীরনগর সাংস্কৃতিক জোট ও বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ, ছাত্র ইউনিয়ন, সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্টের জাবি শাখার নেতাকর্মীরা অংশ নিয়েছেন। আন্দোলনকারীদের এই অবরোধের ফলে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক কার্যক্রম স্থবির হয়ে পড়েছে।

আন্দোলনকারী বলছেন, প্রকল্পে অপরিকল্পনা ও দুর্নীতির প্রতিবাদে এবং তিন দফা দাবি আদায়ে তারা এই অবরোধ কর্মসূচী পালন করছেন।

আন্দোলনকারীদের দাবিগুলো হল- বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর হলের তিনটি হল স্থানান্তর করে নতুন জায়গায় দ্রুত কাজ শুরু করা, মেগাপ্রজেক্টের টাকার দুর্নীতির ব্যাপারে বিচার বিভাগীয় তদন্ত করা, টেন্ডারের শিডিউল ছিনতাইকারীদের শাস্তি প্রদান ও মেগাপ্রজেক্টের স্বচ্ছতা নিশ্চিত করে সকল ব্যয়ের হিসাব জনসম্মুখে প্রকাশ করা এবং মেগাপ্রজেক্টের বাকি স্থাপনার কাজ স্থগিত রেখে সকল স্টেক হোল্ডারদের সাথে আলোচনা করে মাস্টারপ্লান পুনর্বিন্যাস করা।

বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ জাবি শাখার আহ্বায়ক শাকিল উজ্জামান জানান, মঙ্গলবার দিনব্যাপী অবরোধ কর্মসূচী চলবে। একইভাবে তারা বুধবার ও বৃহস্পতিবার এই কর্মসূচী চালিয়ে যাবেন। তিন দিনব্যাপী কর্মসূচী চলাকালে তাদের দাবি মেনে না নেয়া হলে তারা আলোচনা করে নতুন কর্মসূচীর বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন।

এবিষয়ে ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার রহিমা কানিজ বলেন, আমরা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছি। আলাপ-আলোচনা করে পরবর্তীতে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

Print Friendly, PDF & Email

Please Share This Post in Your Social Media


কপিরাইটঃ ২০১৬ দৈনিক অন্যদিগন্ত এর সকল স্বত্ব সংরক্ষিত।
Design & Developed BY Seskhobor.Com
Shares
CrestaProject