বছরের ব্যাবধানে বাণিজ্যে ঘাটতি কমেছে | অন্যদিগন্ত

শনিবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৯, ০৫:২৪ পূর্বাহ্ন

বছরের ব্যাবধানে বাণিজ্যে ঘাটতি কমেছে

অন্যদিগন্ত প্রতিবেদক ॥

গত জুলাই মাসে পণ্য আমদানিতে বাংলাদেশ ব্যয় করেছে ৪৮০ কোটি ৬০ লাখ ডলার। একই সময়ে বাংলাদেশ বিভিন্ন দেশে পণ্য রফতানি করে আয় করেছে ৩৮৭ কোটি ৭০ লাখ ডলার।

এই হিসাবেই গত জুলাই মাসে সামগ্রিক বাণিজ্য ঘাটতির পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৯৭ কোটি ৯০ লাখ। গত বছরের জুলাই মাসে বাংলাদেশের বাণিজ্য ঘাটতি ছিল ১১৬ কোটি ডলার।

এই হিসাবে এক বছরে বাণিজ্য ঘাটতি কমেছে ২০ কোটি ডলার। বাংলাদেশ ব্যাংকের হালনাগাদ প্রতিবেদনে এ তথ্য তুলে ধরা হয়েছে।

অবশ্য ২০১৮-১৯ অর্থবছরের পুরো সময়ে বাণিজ্য ঘাটতির পরিমাণ ছিল এক হাজার ৫৪৯ কোটি ডলার। ২০১৭-১৮ অর্থবছরে ঘাটতি ছিল এক হাজার ৮১৭ কোটি ডলার।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ২০১৯-২০ অর্থবছরের প্রথম মাস জুলাইয়ে বৈদেশিক লেনদেনের চলতি হিসাবে ২৪ কোটি ডলার উদ্বৃত্ত রয়েছে। যদিও গত অর্থবছরের জুলাই মাসে ১৭ কোটি ৯০ লাখ ডলারের ঘাটতি (ঋণাত্মক) ছিল।

বাণিজ্য ঘাটতি কমে আসার পাশাপাশি কারেন্ট অ্যাকাউন্ট ব্যালেন্স উদ্বৃত্ত হওয়াকে দেশের অর্থনীতির জন্য স্বস্তিদায়ক বলে মনে করেন বাংলাদেশ উন্নয়ন গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (বিআইডিএস) গবেষক ড. জায়েদ বখত।

তিনি বলেন, এক মাসের তথ্যের ওপর মন্তব্য করা ঠিক হবে না। আগামীতে যদি আমদানি ব্যয় কমিয়ে আনা সম্ভব হয়, তাহলে দেশ আরও সুফল পাবে। আয়ের প্রবৃদ্ধি ধরে রাখা গেলে এই অর্থবছর শেষে লেনদেন ভারসাম্যে উদ্বৃত্ত ধরে রাখা সম্ভব হবে।

তিনি উল্লেখ করেন, খাদ্যশস্য উৎপাদনে গত কয়েক বছরের সাফল্যের ধারা অব্যাহত থাকলে আমদানি ব্যয় কমানো সম্ভব হবে।

গত ২০১৮-১৯ অর্থবছরে চলতি হিসাবের ভারসাম্য বা ব্যালেন্স অফ পেমেন্টে ৫২৫ কোটি ৪০ লাখ ডলারের ঘাটতি (ঋণাত্মক) নিয়ে শেষ হয়। আগের অর্থবছরে অর্থাৎ ২০১৭-১৮ অর্থবছরে ঘাটতি ছিল ৯৫৬ কোটি ৭০ লাখ ডলা

Print Friendly, PDF & Email

Please Share This Post in Your Social Media


কপিরাইটঃ ২০১৬ দৈনিক অন্যদিগন্ত এর সকল স্বত্ব সংরক্ষিত।
Design & Developed BY Seskhobor.Com
Shares
CrestaProject