৩৯৯কোটি টাকা ব্যয়, হাটহাজারী-ফটিকছড়ির আঞ্চলিক মহাসড়কের কাজের উদ্ভোধন | অন্যদিগন্ত

শনিবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৯, ০৬:৩১ পূর্বাহ্ন

৩৯৯কোটি টাকা ব্যয়, হাটহাজারী-ফটিকছড়ির আঞ্চলিক মহাসড়কের কাজের উদ্ভোধন

মাহমুদ আল আজাদ, হাটহাজারী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি ।।

চট্টগ্রামের হাটহাজারী- নাজিরহাট- ফটিকছড়ির আঞ্চলিক মহা সড়কের তিন লেন কাজের উদ্ভোধন করেছেন চট্টগ্রাম -৫ (হাটহাজারী)র সংসদ সদস্য ও সাবেক সফল মন্ত্রী ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ এমপি। রবিবার (৬ অক্টোবর) বিকেলে হাটহাজারীর সদর বাসস্টেশন জিরো পয়েন্টে এ কাজের শুভ উদ্ভোধন করেন।

সড়ক ও জনপদ অধিদপ্তরের ব্যবস্থাপনায় প্রায় ৪ কোটি টাকা ব্যয়ে সাড়ে ৩২ কিলোমিটার সড়কের তিন লেনের উন্নতি করা হবে। বর্তমান সড়ক ১৮ ফুট থাকলে তিন লেনের এসড়কটি ৩৪ ফুট প্রসস্তকরন করা হবে। সাড়ে ৩২ কি.মি সড়কের আর সিসি বক্স কালভার্ট নির্মাণ করা হবে ৩৮ টি। প্রায় আট হাজার ৫ শত মিটারের ব্রিক ইউ ড্রেন, যাত্রী ছাউনি, বাস বৈ নির্মাণ ৪টি রক্ষাপ্রদ, অফিস ভবন,পরিদর্শন বাংলো, সাইন সিগন্যাল নির্মাণ করা হবে। এ প্রকল্পটি ৪ প্যাকেজে করা হবে।হাটহাজারী থেকে সরকারহাট বাজার পর্যন্ত ৮ কি.মি.তে ৯টি কালভার্ট নির্মাণ হবে। সরকারহাট থেকে নাজিরহাট পর্যন্ত ৮-১৬ কি.মি.তে ১৩ টি কালভার্ট নির্মাণ করা হবে।নাজিরহাট থেকে বিকিরহাট পর্যন্ত ১৬-২৪ কি.মিতে ১১টি কালভার্ট নির্মাণ ও বিকিরহাট থেকে আর্মি ক্যাম্প চেকপোস্ট চা বাগান পর্যন্ত ৩২.৫ কি.মিতে ৫টি কালভার্ট নির্মাণ করা হবে বলে সড়ক ও জনপদ অধিদপ্তর বিভাগ থেকে জানা যায়।

সওজ চট্টগ্রাম বিভাগের প্রকৌশলী জুলফিকার আহমেদের সভাপতিত্বে ও বিশ্বজিৎ এর সঞ্চলনায় উদ্ভোধনী অনুষ্ঠানে উদ্ভোধকের বক্তব্যে ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ এমপি বলেন, এ সরকার জনবান্ধব সরকার। বাংলাদেশের যে প্রান্তে যাবেন সেখানেই দেখবেন উন্নয়ন এ সরকারের আমলে।

হাটহাজারী সংসদীয় এলাকা থেকে নির্বাচিত জাতীয় সংসদ সদস্য ব্যারিষ্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ বলেছেন, দেশকে পরাধীনতার শৃঙ্খল থেকে মুক্ত করেছে জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। তাঁর সুযোগ্য কণ্য বর্তমান সরকারে প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশের উন্নয়ন কর্মকান্ড পরিচালিত হচ্ছে। সরকারের উন্নয়নের ধারাবাহিকতায় হাটহাজারী-নাজিরহাট-ফটিকছড়ি আঞ্চলিক সড়ক সম্প্রসারিত হচ্ছে। এই সড়কের উন্নয়ন ও সম্প্রসারনের দীর্ঘ দিনের দাবী ও প্রত্যাশা পুরন হতে চলেছে। এই জন্য তিনি ব্যাক্তিগত ভাবে প্রধান মন্ত্রীর কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। সাথে সাথে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের নিকট ও তিনি কৃতজ্ঞতা জানান। দীর্ঘদিনের স্বপ্ন হাটহাজারী মহাসড়ক তিন লেনের এ কাজ সফল হচ্ছে। আজকে হাটহাজারীর মানুষকে অবহেলিত হয়ে থাকতে হবেনা। এ সড়ক নির্মাণের পরেই দুর্ভোগ ও যানযট থেকে মুক্তি পাবে।

তিনি আরো বলেন, হাটহাজারীর জনগন শান্ত, এ সড়কের কাজ করার সময় কাউকে চাঁদা দিতে হবেনা। নির্ভয়ে আপনারা কাজ করতে পারবেন। বর্তমান দেশের মানুষ অর্থনৈতিক দিয়ে এগিয়ে। আমি আওয়ামীলীগ করিনা। কিন্তু আওয়ামীলীগ ক্ষমতায় আসলেই দেশের উন্নয়ন হয়। তাই জনবান্ধব সরকােরর হাত ধরেই দেশকে এগিয়ে নিতে আমি সর্বদা প্রস্তুত।

হাটহাজারী বাস ষ্টেশন জিরো পয়েন্ট চত্তরে এই উপলক্ষ্যে আয়োজিত সভায় সভাপতিত্ব করেন সওজ এর নির্বাহী প্রকৌশলী জুলফিকার আহম্মদ। সভায় অন্যান্নদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন হাটহাজারী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহামদ রুহুল আমিন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আব্দুল্লাহ্ আল মাসুম, ইউনুছ গণি চৌধুরী ও ইউপি চেয়ারম্যান সমিতির সভাপতি মোহাম্মদ আলমগীর জামান উদ্বোধনীয় অনুষ্ঠানে দোয়া পরিচালনা করেন ছিপাতলী গাইছিয়া মাদ্রাসার অধ্যক্ষ আবুল ফরাহ্ মোহাম্মদ ফরিদউদ্দীন,এদিকে ৩৯৯ কোটি টাকা ব্যয়ে এই সড়কটির কাজ শুরু করা হবে। ইষ্টান বাংলাদেশ ব্রীজ ইমফ্রভমেন্ট প্রজেক্ট(ইবি.বি.আইপি) এর অধিনে এই কাজ শুরু করা হচ্ছে। ২ বছর মেয়াদী এই প্রকল্পের কাজ শেষ করার কথা রয়েছে বলে জানান সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী জুলফিকার আহম্মেদ। বর্তমান হাটহাজারী হতে ফটিকছড়ি ও খাগড়াছড়ি সড়কটি প্রস্থ ১৮ ফুট রয়েছে। এই সড়কের পাশাপাশি নির্মাণ করা হবে ৩৮টি আর.সি.সি কালর্ভাট।

Print Friendly, PDF & Email

Please Share This Post in Your Social Media


কপিরাইটঃ ২০১৬ দৈনিক অন্যদিগন্ত এর সকল স্বত্ব সংরক্ষিত।
Design & Developed BY Seskhobor.Com
Shares
CrestaProject